HajjSangbad.Com
http://hajjsangbad.com/%e0%a6%b8%e0%a6%95%e0%a6%b2-%e0%a6%a6%e0%a7%87%e0%a6%b6%e0%a7%87%e0%a6%b0-%e0%a6%b9%e0%a6%9c%e0%a7%87%e0%a6%b0-%e0%a6%b8%e0%a6%82%e0%a6%ac%e0%a6%be%e0%a6%a6/%e0%a6%b8%e0%a7%8c%e0%a6%a6%e0%a6%bf-%e0%a6%95%e0%a6%b0%e0%a7%8d%e0%a6%a4%e0%a7%83%e0%a6%95-%e0%a6%85%e0%a6%ad%e0%a6%bf%e0%a6%af%e0%a7%81%e0%a6%95%e0%a7%8d%e0%a6%a4-%e0%a7%a9%e0%a7%aa%e0%a6%9f
Export date: Thu Jun 21 12:28:26 2018 / +0000 GMT

সৌদি কর্তৃক অভিযুক্ত ৩৪টি সহ মোট ৬৮ টি হজ এজেন্সিকে শাশ্তি




সৌদি কর্তৃক অভিযুক্ত ৩৪টি সহ মোট  ৬৮ টি  হজ এজেন্সিকে শাশ্তি 


২০১৫ সালের হজে প্রতারণা, অনিয়ম ও অব্যবস্থাপনার অভিযোগ প্রমাণিত হওয়ায় ৬৮টি হজ এজেন্সিকে শাস্তি দিয়েছে সরকার। শাস্তির মধ্যে রয়েছে লাইসেন্স বাতিল, জামানত বাজেয়াপ্ত, লাইসেন্স স্থগিত, তিরস্কার ও জরিমানা। এ ছাড়া অনিয়মে যুক্ত থাকায় সৌদি আরবের হজ মন্ত্রণালয়ের পর্যবেণ কমিটির সুপারিশে ৩৪টি হজ এজেন্সিকে চলতি বছরের হজ কার্যক্রমে নিষিদ্ধ করেছে ধর্ম মন্ত্রণালয়।
শাস্তি পাওয়া এজেন্সিগুলোর মধ্যে ১০টির লাইসেন্স বাতিল করা হয়েছে। এর মধ্যে দু'টি এজেন্সির জামানত বাজেয়াপ্ত করা হয়েছে। লাইসেন্স স্থগিত করাসহ জরিমানা করা হয়েছে ১১টি এজেন্সির। একই সাথে তিরস্কার ও জরিমানা করা হয়েছে ৪৬টি হজ এজেন্সির। একটি মাত্র এজেন্সিকে তিরস্কার করা হয়েছে। এজেন্সিগুলোকে দুই লাখ টাকা থেকে ১০ লাখ টাকা জরিমানা করা হয়েছে।
২০১৫ সালের হজে বেশ কিছু এজেন্সির বিরুদ্ধে সৌদি আরবে এবং বাংলাদেশে হজযাত্রী/প্রশাসনিক দল/বিভিন্ন সংস্থা কর্তৃক অভিযোগ উত্থাপিত হয়। সচিবের দফতরেও বিভিন্ন এজেন্সির বিরুদ্ধে অভিযোগ উত্থাপিত হয়। ওই সব অভিযোগ তদন্ত করে প্রতিবেদন দাখিলের জন্য সরকার পাঁচ সদস্যের একটি তদন্ত কমিটি গঠন করে। তদন্ত কমিটি অভিযোগকারী ও সংশ্লিষ্ট সবার বক্তব্য, তার/তাদের ব্যক্তিগত শুনানি ও লিখিত বক্তব্য গ্রহণ এবং সৌদি সরকারের নির্দেশনা মোতাবেক তদন্ত প্রতিবেদন দাখিল করে। তদন্ত কমিটির প্রতিবেদনে তার/তাদের এজেন্সির বিরুদ্ধে আনীত হজ ও ওমরাহনীতি/২০১৬ এর অনুচ্ছেদ ২৩.১ অনুচ্ছেদের অভিযোগ সন্দেহাতীতভাবে প্রমাণিত হয়েছে মর্মে উল্লেখ করা হয়। তদন্ত কমিটির সুপারিশ মোতাবেক সরকারের পে ধর্মবিষয়ক মন্ত্রণালয় ৬৪টি এজেন্সিকে শাস্তি দেয়।
এ দিকে গত মওসুমে বাংলাদেশী ৩৪টি বেসরকারি হজ এজেন্সির কার্যক্রমের ওপর সৌদি হজ মন্ত্রণালয়ের পর্যবেণ কমিটি কর্তৃক পরিলতি ত্রুটি/নেতিবাচক মন্তব্যের সারসংপে মক্কার দণি এশীয় মোয়াচ্ছাছার চেয়ারম্যান কর্তৃক স্বারিত পত্রের বরাতে বাংলাদেশ হজ অফিস, জেদ্দা, সৌদি আরব হতে পাওয়া যায়। অভিযুক্ত ৩৪টি হজ এজেন্সিকে সরকার এ বছরের হজ কার্যক্রমের জন্য নিষিদ্ধ করেছে। ফলে শাস্তিপ্রাপ্ত ৬৮টিসহ মোট ১০২টি এজেন্সিকে এ বছরের জন্য নিষিদ্ধ করল সরকার। এ ছাড়া এ বছরের হজ কার্যক্রম পরিচালিত করতে পারবে এমন এক হাজার ২৩টি হজ এজেন্সির তালিকা প্রকাশ করেছে ধর্ম মন্ত্রণালয়। এ তালিকা ও শাস্তিপ্রাপ্ত এজেন্সিগুলোর তালিকা ধর্ম মন্ত্রণালয়ের ওয়েব সাইটে দেয়া হয়েছে।

তবে অভিযুক্ত হজ এজেন্সীদের মধ্যে কয়েকটি হজ এজেন্সী ৯ম জাতীয় হজ উমরাহ মেলায় স্টল নিয়ে পুনরায় হজ যাত্রী সংগ্রহে লিপ্ত রয়েছে ।

অভিযুক্ত হজ এজন্সেী গুলোর মধ্যে হজ লাইসেন্স বাতিল ও জামানত বায়েজাপ্ত করা হয় রৌমারী ট্রাভেলস এন্ড ট্রুরস (হজ লাইসেন্স নং-১৪১১),কে আলম ট্রাভেলস এন্ড ট্রুরস  (হজ লাইসেন্স নং-৮৬৪)।

 

 
Post date: 2016-03-14 05:46:42
Post date GMT: 2016-03-14 05:46:42

Post modified date: 2016-03-14 05:46:42
Post modified date GMT: 2016-03-14 05:46:42

Export date: Thu Jun 21 12:28:26 2018 / +0000 GMT
This page was exported from HajjSangbad.Com [ http://hajjsangbad.com ]
Export of Post and Page has been powered by [ Universal Post Manager ] plugin from www.ProfProjects.com